সহজেই তৈরী করুন Multiboot CD / DVD

Multiboot CD/ DVD

সহজেই তৈরী করুন multiboot DVD (একাধিক মেনু সম্বলিত ইন্সটলেশন ডিভিডি/সিডি)

আমরা অনেকেই ভাবি যে একটি ডিভিডি বা সিডির মধ্যে অধিক সফটওয়্যার ভরে ফেলে সিডির সংখ্যা কমিয়ে ফেলার কথা। কিন্তু যখন সেটা বুটেবল সিডি হয় তখন একাধিক সিডি একত্রিকরন প্রক্রিয়া টি জটিল হয়ে দাঁড়ায়। আজ আমি সেটাই সহজ ভাবে উপস্থাপন করব। আজকের এক্সপেরিমেন্ট এ আমি সাধারন সিডি ব্যবহার করেছি, তবে আপনারা ইচ্ছা করলে ডিভিডি ও ব্যবহার করে আরও বেশী বুটেবল সিডি একত্রিত করতে পারবেন। আজকের টিউটরিয়ালে আমাদের যা যা লাগবে তা হলঃ
১। এরো স্টুডিও ২০০৭ [Aero Studio 2007] অথবা [Aero Studio 2008]
২। আই এস ও এডিটর, অনেক ধরনের সফটওয়্যার দিয়েই এই কাজ করা যায় (আই এস ও ফাইল এ ফাইল এড করা এবং বাদ দেওয়া) আমি এক্ষেত্রে ব্যবহার করেছি পাওয়ার আই এস ও ।
৩। বুটেবল সিডি, এক্ষেত্রে আমি ব্যবহার করেছি, ম্যাক্রিয়াম রিফ্লেক্ট রেস্কিউ ডিস্ক এবং এক্সপি সার্ভিস প্যাক থ্রি সেট আপ ডিস্ক।
কাজ শুরু করার আগে বলে রাখা প্রয়োজন, এই একই কাজ বিভিন্ন ভাবে করা যায়, পাওয়ার আই এস ও ব্যবহার না করেও অন্য ISO Edit Software দিয়ে ও বুট ফাইল এক্সট্রাক্‌ট করে এই কাজ করা সম্ভব ।
উপরোক্ত সব গুলো সংগ্রহের পর চলুন কাজ শুরু করে দেই।
প্রথমেই আমাদের দরকার প্রয়োজনীয় ফাইল গুলি সংগ্রহ করা। শুরু করা যাক এক্সপি সেট আপ ডিস্ক দিয়ে। এক্সপি সেট আপ ডিস্ক সিডি রম ড্রাইভে ভরে ওটাকে আই এস ও ইমেজ এ পরিনত করি।

আই এস ও ফাইল টিকে একটি নির্দিষ্ট ফোল্ডারে D:\My lab\Bootable Image\
XP3.iso নামে সেভ করে রাখি।
এবার power ISO দিয়ে ফাইল টার কন্টেন্ট গুলো D:\My lab\Bootable Image ফোল্ডারে এক্সট্রাক্ট করে নেই(এই কাজ Win RAR ,7zip এর মত অনেক সফটওয়্যারই করতে পারে)।

এখন যেহেতু আই এস ও এর কন্টেন্ট আপনি অলরেডি Bootable Image ফোল্ডারে চালান করে দিয়েছেন, কাজেই এ গুলোর আর আই এস ও ফাইলের মধ্যে থাকার দরকার নেই। তবে বুটেবল ইনফরমেশন সহ কিছু ফাইল আই এস ও তে রেখে দিতেই হবে যেটা আমাদের এরো স্টুডিও কাজে লাগাবে, তাই শুধু মাত্র ফোল্ডার গুলো আই এস ও এডিটর(এই ক্ষেত্রে Power ISO) দিয়ে ডিলিট করে ফেলুন।

এবার এই আই এস ও ফাইল টাকে সেভ করে ফেলি।
উইন্ডোজ এক্সপি এর প্রয়োজনীয় ফাইল সংগ্রহের পালা শেষ এবার দ্বীতিয় বুটেবল সিডি এর ফাইল সংগ্রহ করতে হবে। এই ক্ষেত্রে আমি ব্যবহার করেছি ম্যাক্রিয়াম এর রেস্কিউ সিডি। ম্যাক্রিয়াম রিফ্লেক্ট নামের এই সফটওয়্যার টি কিন্তু চমতকার, এটি একটি ফ্রি সফটওয়্যার, এটির মাধ্যমে, উইন্ডোজ চলাকালীন সময়ে আপনি আপনার সিস্টেম ড্রাইভের ইমেজ গ্রহন ও পরবর্তি তে রেস্কিউ সিডি ব্যবহার করে তা অল্প সময়ের মধ্যে (মাত্র ৫ মিনিট , অবশ্য যদি ড্রাইভ টিতে মাত্র ১০ গিগাবাইট ডাটা থাকে) তা রিস্টোর করে নিতে পারবেন। এখন এই রেস্কিউ সিডির আই এস ও ফাইল টি নিয়ে মুলত একই কাজ করতে হবে। কন্টেন্ট এক্সট্রাক্ট করতে হবে ঐ একই যায়গায় অর্থাৎ c:\sumon\bootableImage\ (এই আই এস ও টি মাত্র ৭ মেগাবাইটের, আর কন্টেন্ট বলতে isolinux নামের একটি মাত্র ফোল্ডার)। এরপর ইমেজ(Rescue.iso) এর ভিতর হতে ISOLINUX ফোল্ডার টি ডিলিট করে দেই, এবং আই এস ও ফাইল টি সেভ করি।

এবারে আমরা এরো স্টুডিও ওপেন করি। এবার ফরম্যাট মেনু হতে সেটিংস এ ক্লিক করে আমাদের বুট পেজ এর ব্যাক গ্রাউন্ড সিলেক্ট করি। ব্যাক গ্রাউন্ড আগে হতেই নিজের মত এডিট করে রাখতে পারেন ।

এবারে কন্ট্রোল মেনু হতে বাটন এ ক্লিক করে বাটন বসাই। এক্ষেত্রে আমরা তিনটি বাটন ব্যবহার করেছি একটি ম্যাক্রিয়াম রেস্কিউ সিডি, একটি এক্সপি থ্রি চালানোর জন্য, এবং অন্যটি হার্ড ডিস্ক হতে বুট আপ করার জন্য।
বাটন গুলির কনফিগারেশন যথাক্রমে নীচের চিত্রের মত হবেঃ

যারা এক্সপি থ্রি এর পরিবর্তে এক্সপি ২ এর সেট আপ ডিস্ক নিয়ে কাজ করছেন, তারা এই আই এস ও বানানোর প্রক্রিয়াকে বাদ দিয়ে শুধু কন্টেন্ট গুলো কপি করে নিবেন।

যারা এক্সপি ২ ডিস্ক বানাচ্ছেন(এক্সপি থ্রি) এর পরিবর্তে, তারা নিচের কনফিগারেশনে লিখবেনঃ

bcdw (cd)/i386/setupldr.bin এবং আপনারা xp3.iso এর মত xp2.iso ফাইলটি তৈরী করার প্রয়োজন নেই।
এবার মেনু জেনারেট করার পালা,

এরপর এর উইন্ডো তে সব গুলো ঘর পুরন করিঃ

Go বাটনে ক্লিক করার সাথে সাথেই মেনু জেনারেট হয়ে যাবে, তারপর “Cancel” বাটনে ক্লিক করলে আমরা আগের উইন্ডো তে ফিরে যাবো।
এবারে মেনু ডেপ্লয় করার পালা তা করতে নীচের চিত্রে যেভাবে দেখানো আছে তা অনুসরন করিঃ

এবার যে উইন্ডো টি আসবে তা যথাক্রমে পুরন করিঃ
এবার সব শেষে আই এস ও ফাইল অথবা সিডি তে রেকর্ড করার পালা।

আমি প্রথমে আই এস ও ফাইল তৈরী করেছি এবং পরে তা নেরো এর মাধ্যমে একটি সিডি আর ডাব্লিউ অর্থাৎ রি রাইটেবল সিডি তে বার্ন করে পরীক্ষা মুলক ভাবে সিডি টি রম ড্রাইভে রেখে কম্পিউটার বুট করে দেখেছি তা ঠিক মত কাজ করে কিনা। এবং তা কাজ করেছে।আশা করি আপনারাও সফল হবেন। ডিভিডি তৈরীর প্রক্রিয়াটি অনেকটা একই রকম। আশা করি আপনাদের এই টিউটরিয়াল ফলো করতে সমস্যা হবেনা। সমস্যা যদি হয়েই যায়, অবশ্যই আমাকে জানাতে ভুলবেন না।

আর একটা কথা , এখানে যে আই এস ও ব্যবহার করা হয়েছে, তা কিন্তু সম্পুর্ন সিডি এর ইমেজ নয়, ইমেজ টাকে কেটে ছেটে নেওয়া হয়েছে, আসল কন্টেন্ট রাখা হয়েছে হোম ফোল্ডারে, আর আই এস ও তে থেকে যাচ্ছে বুটেবল ইনফরমেশন সহ নির্দিষ্ট কিছু ফাইল।মুলত এখানে আই এস ও ফাইল টাকে শুধু মাত্র বুট ইনফরমেশন ও তার সাথে সংশ্লিষ্ট কিছু গুরুত্বপুর্ন ফাইল ধরে রাখার জন্য ব্যবহার করা হয়েছে। লক্ষ্য করে দেখুন আই এস ও এর সাইজ মাত্র ৫৪ কিলোবাইট, কিন্তু আসল সিডি এর আই এস ও ইমেজ ছিল ৫৯৫ মেগাবাইট এর মত। আর এই ধরনের এক্সপেরিমেন্ট আপনারা যদি CD-RW বা DVD-RW দিয়ে করেন, তাহলেই ভালো হয়, খামোখা ডিস্ক নস্ট হবার ঝুকি থাকে না।

আসলে যে কোন বুটেবল ডিস্ক এর আই এস ও ইমেজ ই আপনি ব্যবহার করতে পারেন, সে ক্ষেত্রে হিরেন বুট এর সঠিক ভাবে তৈরী আই এস ও ইমেজ থাকলে, bcdw (cd)/Hiren.iso
লিখলেই তো হবে।

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s