যদি তুমি বলো

যদি তুমি বলো রুপালী চাঁদ এনে দিতে ,
আমি পারবোনা তা কখনো এনে দিতে….
যদি বলো বিশ্ব সংসার তন্য তন্য করে –
১০৮ টা নীল পদ্ম এনে দিতে ,
সত‌্য বলছি আমি তোমাকে তাও এনে দিতে পারবোনা….
দু হাত পেতে যদি কখনো সমুদ্রের নোনা জল খুঁজো ,
আমি সমুদ্র তো দেখেছি বহু বার,কখনো ছুয়ে দেখিনি তার জল
আমি কি করে এনে দেবো সেই নোনা জল তোমার হাতে তুলে ?
আমি পারবোনা তোমাকে কখনো দিতে এক মুঠো সুখ
আমার এই বেদনা শিক্ত জীবন থেকে……তবে,
আমি সামান্য কিছু দিতে পারি তোমায়,স্বার্থ হীন ভাবে,
আমি দিতে পারি তোমায় হাজাড়ও রাত্রি জাগা –
তেলের প্রদ্বীপ হতে কিছুটা কাজল তুলে….
তোমার অপরুপ চোখের কার্নিশে রাখবে বলে…..
আমি তোমার চরন দুটি রাঙাতে পারি ,
ভোরের শিশির ভেঁজা শিউলি ফুলে ফুলে….
আমি শ্রাবন দিনের প্রথম কদম হাতে তোমার তরে,
অপেক্ষা করতে পারি শ্রাবন জলে ভিঁজে ভিঁজে…..
যদি কখনো কোনো ভুলে,তোমার চোখের কোনে-
জল চলে আসে বেদনার ছলে,
মিথ্যে স্বান্তনা দেবো ,একথা ভেবোনা কভু…..
স্বার্থহীন ভাবে আমিও ঝড়াতে পারি দু ফোঁটা জল-
তোমার বেদনায় সমোবেথীত হয়ে……..

Leave a Reply

Fill in your details below or click an icon to log in:

WordPress.com Logo

You are commenting using your WordPress.com account. Log Out / পরিবর্তন )

Twitter picture

You are commenting using your Twitter account. Log Out / পরিবর্তন )

Facebook photo

You are commenting using your Facebook account. Log Out / পরিবর্তন )

Google+ photo

You are commenting using your Google+ account. Log Out / পরিবর্তন )

Connecting to %s